bbb

: অমর একুশে গ্রন্থমেলার প্রস্তুতি পুরোদমে চলছে। বাংলা একাডেমির গ্রন্থমেলার সদস্য সচিব মো. জালাল আহমেদ আজ বাসস’কে এ তথ্য জানিয়েছেন।
তিনি আজ বাসসকে বলেন, ‘একাডেমির কার্যক্রম অনুযায়ী পহেলা ফেব্রুয়ারি মেলা উদ্বোধন করা যাবে, সেই লক্ষ্যেই প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত গ্রন্থমেলা সঠিক সময়ে শুরু হবে বলেই আশা করছি। পরবর্তী সিদ্ধান্ত না আসা পর্যন্ত এর প্রস্তুতি গ্রহণ করা হচ্ছে। সরকার যে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে, সেই নির্দেশনা মোতাবেক কার্যক্রম চলবে। পাশাপাশি সরকারের নির্দেশনায় যে স্বাস্থ্যবিধি দেয়া হবে, সেসব নির্দেশনা মেনেই এবারের গ্রন্থমেলা হবে।
গ্রন্থমেলা প্রাথমিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে সোহরাওয়ার্দী উদ্যোনে প্রায় সাড়ে ছয়’শ স্টলের অবকাঠামো তৈরির কাজ চলছে বলে তিনি জানান।
এদিকে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় থেকে এক চিঠিতে অমর একুশে গ্রন্থমেলার প্রস্তুতি বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়েছে উল্লেখ করে জালাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, এখন পর্যন্ত কাজের যে অগ্রগতি তাতে ধারণা করা হচ্ছে, আগামী পহেলা ফেব্রুয়ারিতে গ্রন্থমেলা শুরু করা সম্ভব হবে।
গ্রন্থমেলা সম্পর্কে রিদম প্রকাশনীর প্রকাশক মো. গফুর হোসেন বলেন, গ্রন্থমেলার প্রস্তুতি দেখে এখন পর্যন্ত এই মেলা হবে বলেই ধারণা করা হচ্ছে। তবে যে হারে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে, তাতে সামনের দিনগুলোতে সরকারের সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করবে। বাংলা একাডেমি ও প্রকাশক সমিতি এই অমর একুশে গ্রন্থমেলা হোক তা চাইছে।
তিনি বলেন, গতবছর নানা সংকটের মধ্য দিয়ে গ্রন্থমেলা শুরু হয়েছিল। স্টল ভাড়া বাবদ সরকারের কাছ থেকে যে প্রণোদনা পেয়েছিলাম, তাতে প্রকাশকরা লাভবান হয়নি। এছাড়া ফেব্রুয়ারির বইমেলা শুরু হয়েছিল মার্চ মাসে। পাঠক ও দর্শনার্থীদের মধ্যে ছিল করোনা ভাইরাস আতঙ্ক। লকডাউন শুরু হওয়াসহ সীমিত সময়ের বইমেলা দর্শকশূণ্য হয়ে পড়েছিল। গতবছরের মতো প্রকাশকদের প্রণোদনা দেয়া হোক, আমরা এ দাবি জানাচ্ছি। আগামীকাল ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত স্টল বরাদ্দের জন্য আবেদন জমা দেয়া যাবে।