c1

বৃহস্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) এক বিবৃতিতে ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা জানিয়েছে, পরিবারের সঙ্গে আরও সময় কাটাতে চান বলে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ডি কক। ভারতের সঙ্গে চলমান সিরিজের প্রথম টেস্টের পর থেকেই অবসরে চলে গেছেন তিনি।

২০১৪ সালে পোর্ট এলিজাবেথে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে টেস্টে অভিষেক করেন ডি কক। ৮ বছরে ৫৪ টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন তিনি। ৫৪ টেস্টে ৬ শতক এবং ২২ অর্ধশতকের সাথে করেছেন ৩৩০০ রান। এছাড়াও উইকেটের পেছনেও বিরাট ভূমিকা রেখেছেন এই প্রোটিয়া ক্রিকেটার। ৫৪ টেস্টে ২৩২ টি উইকেটে নাম আছে তার।

এদিকে নিজের টেস্ট অবসর নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ডি কক লিখেছেন, এটা এমন সিদ্ধান্ত নয় যে আমি খুব সহজে নিয়েছি। আমার ভবিষ্যৎ কেমন হবে তা নিয়ে ভাবতে আমি অনেক সময় নিয়েছি এবং এখন আমার জীবনে কী অগ্রাধিকার নেওয়া দরকার কারণ সাশা এবং আমি আমাদের প্রথম সন্তানকে এই পৃথিবীতে স্বাগত জানাতে যাচ্ছি এবং এর বাইরে আমাদের পরিবারকে বড় করতে চাই। আমার পরিবারই আমার কাছে সবকিছু এবং আমি আমাদের জীবনের এই নতুন এবং উত্তেজনাপূর্ণ অধ্যায়ে তাদের সাথে থাকার জন্য সময় এবং স্থান পেতে চাই।

আরও পড়ুন: আফ্রিকায় জয় দিয়ে শুরু কোহলির ভারতের

ডি কক আরও বলেন, আমি টেস্ট ক্রিকেট পছন্দ করি এবং আমি আমার দেশের প্রতিনিধিত্ব করতেও পছন্দ করি। আমি উত্থান-পতন, উদযাপন এবং এমনকি হতাশা উপভোগ করেছি, কিন্তু এখন আমি এমন কিছু খুঁজে পেয়েছি যা আমি আরও বেশি পছন্দ করি।

তবে টেস্ট থেকে অবসর নিলেও ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি চালিয়ে জাবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। ডি কক বলেন, প্রোটিয়া হিসেবে আমার ক্যারিয়ারের এখানেই শেষ নয়, আমি সাদা বলের ক্রিকেটে সম্পূর্ণভাবে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং অদূর ভবিষ্যতের জন্য আমার সামর্থ্য অনুযায়ী আমার দেশের প্রতিনিধিত্ব করব।

এদিকে দক্ষিণ বৃহস্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) আফ্রিকায় তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ১১৩ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে ভারত। ভারতের দেওয়া ৩০৫ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে দ্বিতীয় ইনিংসে ১৯১ রানে থামে প্রোটিয়াদের ইনিংস।