pm

বঙ্গবন্ধু জাতিকে স্বাধীনতা দিয়ে গেছেন আর বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিকে অর্থনৈতিক মুক্তি দিয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম।
‘বঙ্গবন্ধু দিয়েছেন স্বাধীনতা, তার কন্যা দিয়েছেন অর্থনৈতিক মুক্তি’

রোজিনা রোজী
২ মিনিটে পড়ুন

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ডিজিটাল বাংলাদেশে পরিণত হয়েছে। সব ক্ষেত্রে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। করোনাকালেও প্রবৃদ্ধি কমেনি। পাকিস্তান থেকে অনেক সূচকে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ। আজ বাংলাদেশ এবং শেখ হাসিনাকে বিশ্ববাসী শ্রদ্ধার চোখে দেখেন।

মঙ্গলবার (২৮ ডিসেম্বর) বিকেলে ঢাকার কেরাণীগঞ্জের রোহিতপুরে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষ উপলক্ষে যুবলীগ আয়োজিত ‘মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভা, শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

নির্বাচন কমিশন গঠনের বিষয়ে তিনি বলেন, সার্চ কমিটির মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন করবেন রাষ্ট্রপতি। আগামী জাতীয় নির্বাচনে তত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান থাকবেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আরও পড়ুন : ‘দেশকে অস্থিতিশীল করতে ষড়যন্ত্র চলছে’

গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংসের ষড়যন্ত্র করে উন্নয়নকে থামিয়ে দেওয়ার ষড়যন্ত্র চলছে বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, বাংলাদেশে বিএনপি আন্দোলন করে কিছুই করতে পারবে না। আন্দোলনের নামে বিএনপি নৈরাজ্য করলে তার উপযুক্ত জবাব দেওয়া হবে। অপশক্তির বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে।

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে তিনি বলেন, সরকার বেগম জিয়ার প্রতি যথেষ্ট মানবিক আচরণ করছে। তার মুক্তির অনেক পথ খোলা আছে। কিন্তু তার দলই চায় না তিনি মুক্তি পান।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে কেরাণীগঞ্জ মডেল থানা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ইউসুফ আলী চৌধুরী সেলিম, যুগ্ম আহবায়ক হাজী শফিউল আজম খান বারকু ও হাজী আলতাফ হোসেন বিপ্লব এবং ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের উপ দপ্তর সম্পাদক ও শাক্তা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হাবিব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।