bag

বুধবার (৩ নভেম্বর) সকালে চট্টগ্রাম নগরীর লালদীঘির পাড় এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এর আগে, ঋণ খেলাপির অভিযোগে সিটি ব্যাংকের করা মামলায় গত ২৮ অক্টোবর তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছিল আদালত।

মামলা প্রসঙ্গে কোতোয়ালি থানার ওসি মো. নেজাম উদ্দিন বলেন, ঋণ খেলাপির মামলায় মোহাম্মদ ফেরদৌস খান আলমগীরকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: জেলহত্যার রায়ও কার্যকরের সর্বাত্মক চেষ্টা চলছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বাগদাদ গ্রুপের ব্যবসা আমদানি- রপ্তানি, পরিবহন, কৃষি, সামুদ্রিক মৎস্য প্রক্রিয়াজাতকরণ, তথ্যপ্রযুক্তি, বীমাসহ নানা খাতে ছড়িয়ে রয়েছে।

জানা গেছে, ফেরদৌস এন্টারপ্রাইজের চেয়ারম্যানের কাছে সিটি ব্যাংকের পাওনা ৩১ কোটি ৫৬ লাখ ১৩৬২ টাকা। ঋণ নিয়ে তিনি তা পরিশোধ করেননি। পরে ব্যাংকের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়। এতে উকিলের মাধ্যমে আদালতে আপত্তি জানালেও তিনি হাজির হননি। সবশেষ গত মাসে অর্থঋণ আদালতে আবেদন করা হলে তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

গ্রেপ্তারের পর বুধবারই ফেরদৌসকে হাজির করা হলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বলে জানান আইনজীবী নাঈম।