timi

স্পেনের আটলান্টিক উপকূলে গত ৪০ বছরে দেখা যায়নি পৃথিবীর সবচেয়ে বড় স্তন্যপায়ী নীল তিমি। সম্প্রতি এই এলাকায় প্রাণীটির আনাগোণা বাড়তে দেখা গেছে।

স্পেনের আটলান্টিক উপকূলের উত্তর-পশ্চিমের গ্যালিসিয়া এলাকায় দীর্ঘ দিন পর ২০১৭ সালে প্রথম নীল তিমি শনাক্ত করেন মেরিন বায়োলজিস্ট ব্রুনো ডায়াজ। তিনি গ্যালিসিয়ার একটি ডলফিন রিসার্চ ইনস্টিটিউটের প্রধান।

২০‌১৮ সালে আরও একটি নীল তিমির দেখা পাওয়া যায় ওই একই এলাকায়। আর তারপর ২০২০ সালে দেখা যায় দুটি নীল তিমির। মাত্র এক সপ্তাহ আগে ভিন্ন একটি প্রজাতির দেখা মেলে ও গ্রোভ এলাকার কাছে ইসলাস সিয়েস-এ।

স্পেনের আটলান্টিক উপকূলে ব্যাপক শিকারের কারণে প্রায় বিলুপ্তির মুখে পড়ে নীল তিমি। সেই এলাকায় আবারও নীল তিমি কেন ফিরে আসছে তার কারণ অনুসন্ধান করছেন বিশেষজ্ঞরা। মেরিন বায়োলজিস্ট ব্রুনো ডায়াজ বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণেই প্রাণীগুলো ফিরছে কিনা তা এখনও স্পষ্ট নয়।

ব্রুনো ডায়াজ বলেন, ‘১৯৭০ এর দশকে শিকারের উপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার আগে নীল তিমির একটা পুরো প্রজন্ম হারিয়ে যায়। এখন ৪০ বছরেরও বেশি সময় পর বেঁচে যাওয়া কয়েকটি বংশধরদের ফিরে আসতে দেখছি।’

তবে ওই এলাকায় নীল তিমির ফিরে আসাকে সব বিশেষজ্ঞই ইতিবাচকভাবে দেখছেন না। মেরিন বায়োলোজিস্ট আলফ্রেডো লোপেজ মনে করেন জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে নীল তিমির বাসস্থানে বদল আসতে পারে।

একটা সাধারণ নীল তিমি ২০-২৪ মিটার দীর্ঘ এবং ১২০ টন ওজনের হতে পারে যা প্রায় ১৬টি হাতির সমান। তবে ৩০ মিটার দীর্ঘ এবং ১৭০ টন ওজনের নীল তিমির নমুনাও পাওয়া গেছে।