joe

Posted by: | Posted on: November 8, 2020

নিজের জন্মস্থান পেনসিলভানিয়ায় বাইডেনের জয়ী হওয়ার পূর্বাভাস পাওয়ার আগ পর্যন্ত মার্কিন বার্তা সংস্থা এপি ও ফক্স নিউজের হিসাবে বাইডেনের ইলেক্টোরাল ভোটের সংখ্যা ছিল ২৬৪। আর সিএনএন ও বিবিসিসহ বেশ কিছু সংবাদমাধ্যমের হিসাবে বাইডেনের ভোট ছিল ২৫৩টি। এসব সংবাদমাধ্যম এখনও জর্জিয়ায় বাইডেনকে জয়ী বলতে নারাজ। তবে ২০ ইলেক্টোরাল ভোটের পেনসিলভানিয়ায় নিশ্চিতের পর আর কোনও সংশয় রইলো না। বাইডেন পৌঁছে গেলেন ম্যাজিক ফিগারে।

ডেমোক্র্যাটিক প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হওয়ার আগে বারাক ওবামা আমলে ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে কাজ করেছেন বাইডেন। ডেলাওয়ারের সবচেয়ে দীর্ঘ আমলের সিনেটরও তিনি। নির্বাচনি প্রচারের সময় থেকেই বাইডেন বলে আসছেন ট্রাম্পের আমলে ক্ষয়ে যাওয়া দেশ পুনর্গঠন করবেন।

সিএনএন-এর আভাস অনুযায়ী যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী ভাইস প্রেসিডেন্ট হতে যাচ্ছেন কমলা হ্যারিস। এছাড়াও তিনি দেশটির প্রথম নারী এবং কৃষ্ণাঙ্গ ভাইস প্রেসিডেন্টও হবেন। দক্ষিণ এশীয় বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্টও হবেন তিনি।

২০১৭ সাল থেকে ক্যালিফোর্নিয়ার সিনেটে প্রতিনিধিত্ব করে আসছেন হ্যারিস। জ্যামাইকান বাবা ও ভারতীয় অভিবাসী মায়ের সন্তান তিনি। কৃষ্ণাঙ্গ ব্যাপটিস্ট চার্চ আর হিন্দু মন্দিরে যাতায়াত করে বেড়ে উঠেছেন তিনি।

পেনসিলভানিয়ায় সর্বশেষ ব্যালট গণনা শেষ হলে ট্রাম্পের চেয়ে ৩০ হাজার ভোটে এগিয়ে যান বাইডেন। আর এতেই তাকে জয়ী ঘোষণা করে সিএনএনসহ মার্কিন সংবাদমাধ্যমগুলো।

এর আগে শনিবার এক বিবৃতিতে ট্রাম্প জানিয়েছেন, তিনি হার মেনে নেবেন না; বরং আইনি লড়াই চালিয়ে যাবেন।

তিনি বলেন, খেলা এখনও শেষ হয়ে যায়নি। জো বাইডেন এখন পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে কোনও রাজ্যে বিজয়ী হয়নি। তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ রাজ্যগুলোতে ফল পুনঃনিরীক্ষণের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। আমাদের বৈধ আইনি চ্যালেঞ্জ রয়েছে; যা চূড়ান্ত বিজয়ী নির্ধারণ করতে পারে।

ট্রাম্প বলেন, নির্বাচনি আইন পুরোপুরি বহাল রয়েছে এবং প্রকৃত বিজয়ীই হোয়াইট হাউজে আসন গ্রহণ করেছেন; এটি নিশ্চিত করতে সোমবার আমাদের প্রচার শিবির বিষয়টি আদালতে নিয়ে যাবে।

ব্যাটলগ্রাউন্ড বা দোদুল্যমান রাজ্যগুলোতে ব্যালট গণনার বিষয়ে ট্রাম্প শিবিরের পক্ষ থেকে এরইমধ্যে সিরিজ আইনি লড়াই শুরু হয়েছে। পেনসিলভানিয়া, জর্জিয়া, মিশিগান ও নেভাদার বিষয়ে আদালতে মামলা করতে যাচ্ছে ট্রাম্প শিবির। কোনও ধরনের প্রমাণ ছাড়াই এসব রাজ্যের আগাম ভোট নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন ট্রাম্প।