Main Menu

দ্রুত বিচার আইনের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

(বাসস) : মন্ত্রিসভা আজ আইন-শৃঙ্খলা বিঘ্নকারী (দ্রুত বিচার) (সংশোধনী) আইন-২০১৯ এর খসড়া নীতিগত ভাবে অনুমোদন দিয়েছে। আইনের এই খসড়ায় আইনটির কার্যকারিতার মেয়াদ আরো পাঁচ বছর বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আজ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত সাপ্তাহিক বৈঠকে এই অনুমোদন দেয়া হয়।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বৈঠক শেষে সচিবালয়ে এক প্রেসব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের বলেন, মন্ত্রিসভা আজ দ্রুত বিচার আইনের মেয়াদ বৃদ্ধির প্রস্তাব নীতিগত ভাবে অনুমোদন দিয়েছে। আইনটি কার্যকরের মেয়াদ গত এপ্রিল মাসে শেষ হয়ে যায়। সংশোধনীর পর আইনটি ২০২৪ সাল পযর্ন্ত কার্যকর থাকবে।
শফিউল আলম আইনটির মেয়াদ বৃদ্ধির কারণ সম্পর্কে বলেন, অনেকগুলো স্পর্শকাতর মামলা বিচারাধীন রয়েছে। এই মামলাগুলোর দ্রুত বিচার সম্পন্ন করতে এই আইনের দরকার।
তিনি আরো বলেন, মন্ত্রিসভা কাস্টম আইন-২০১৯ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে। ২০১৮ সালে আইনটি চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়েছিল। কিন্তু সে সময়ে বিগত সংসদে আইনটি পাস না হওয়ায় এই অনুমোদন বাতিল হয়ে যায়। আইনের খসড়া অনুমোদন করা শুধুমাত্র আনুষ্ঠানিকতা মাত্র। ২০১৮ সালে অনুমোদিত খসড়ায় কোন পরিবর্তন করা হয়নি।
মন্ত্রিসভা একুশে পদক বিজয়ী দু’জন বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী যথাক্রমে সুবির নন্দি এবং খালিদ হোসেনের মৃত্যুতে দুটি পৃথক শোক প্রস্তাব অনুমোদন করেছে।
মন্ত্রিসভা বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট বিজয়ী বাংলাদেশের অনুর্ধ ১৯ নারী ফুটবল দল এবং আয়ারল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ত্রিজাতি ক্রিকেটে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্রিকেট দলকে অভিনন্দন জানিয়েছে।
সভায় পারমাণবিক শিল্পে ই-উন্নয়নে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি হিসাবে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রীকে রুশ ফেডারেশনের দেয়া রোস্টম স্ট্যাট অ্যাটোমিক এনার্জির একটি সম্মাননা পদক প্রধানমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর করা হয়। মানব সম্পদ উন্নয়নের ক্ষেত্রে সেরা প্রকল্প হিসাবে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পকে দেয়া এই বিশেষ সম্মাননা প্রধানমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর করা হয়।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *